নির্মাণাধীন মসজিদে গিয়ে গলায় ফাঁ স দিলেন যুবক

স্টাফ রিপোর্টার: নির্মাণাধীন মসজিদে গিয়ে গলায় ফাঁস দিলেন যুবক!উজ্জ্বল অধিকারী, বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি- সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার কামারপাড়া গ্রামে শহিদুল খন্দকার (৩৫) নামে এক যুবক গলায় ফাঁ স দিয়ে আত্মহ ত্যা করেছে।

আজ শনিবার (২৪ আগষ্ট) ভোরের দিকে নির্মাণাধীন নুরে জামে মসজিদের সিঁড়ির কাছে ওই যুবক আত্মহ ত্যা করে। নি হত শহিদুল খন্দকার বেলকুচি পৌর এলাকার কামারপাড়া গ্রামের আব্দুল খালেক খন্দকারের ছেলে।
এলাকাবাসী জানান, বাড়ির সকলের অজান্তে গলায় রশি দিয়ে আত্মহ ত্যা করছে।

বাড়ির লোকজন নি হত শহিদুলকে ঘরে না দেখতে পেয়ে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে পাশে নির্মাণাধীন নূরে জামে মজিদে সাটারিংয়ের সাথে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেয়।

বেলকুচি থানার অফিসার ইর্নচাজ আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থল থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ

ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

নিজের বিয়ে বন্ধ করে ‘সাহসী’ খেতাব পেলো বিউটি

স্টাফ রিপোর্টার: পরিবারের ভয়-ভীত উপেক্ষা করে নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধ করায় ‘সাহসী’ খেতাব পেয়েছে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী বিউটি খাতুন। এছাড়া তাকে পুরস্কার হিসেবে ২ হাজার টাকা মূল্যের প্রাইজবন্ড ও বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী দেওয়া হয়।
বিউটি খাতুন গুরুদাসপুর উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের ধানুড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তমাল হোসেন জানান,
২৮ জুলাই রাত ১১টার দিকে বিউটি গোপনে বাবার মোবাইল ফোন থেকে তাকে ফোন করে জানায় বিয়ের বয়স না হওয়ার পরও পরিবারের পক্ষ থেকে তার বিয়ে ঠিক করা হয়েছে। যাতে তার কোনও সম্মতি নেই। বিয়ে বন্ধের জন্য সে সহযোগিতা চায়। এরপর তিনি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশ ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিয়ে বন্ধ করেন। প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ের আয়োজন করবে না— এই মর্মে বিউটির অভিভাবকদের কাছ লিখিত নেন তিনি।

এ বিষয়ে বিউটি জানায়, তাকে পুরস্কৃত করার বিষয়টি প্রচার হলে অনেক মেয়েই তার পথ অবলম্বন করে শুধু নিজেই বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পাবে না বরং বাল্যবিয়ে বন্ধে সরকারের কার্যক্রমকে তারন্বিত করবে। পুরস্কৃত করার জন্য সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান সে।

ধ র্ষণের পর হ ত্যা : ২২ বছর পর আসামি গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার: শাহজাদপুরে ধ র্ষণের পর হ ত্যা: ২২ বছর পর আসামি গ্রেফতাররাজিব আহমেদ, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে সিদ্দিকুর রহমান নামের ধ র্ষণ ও হ ত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ২২ বছরের পলাতক আসামিকে পাবনা থেকে গ্রেফতার করেছে শাহজাদপুর থানা পুলিশ। সিদ্দিকুর উপজেলার পোতাজিয়া ইউনিয়নের রাউতারা গ্রামের মৃত আরজানের ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৫ সালে শাহজাদপুর উপজেলার রাউতারা গ্রামের মৃত আরজানের পুত্র অভিযুক্ত আসামি সিদ্দিকুর রহমান উপজেলার দিলরুবা বাসস্ট্যান্ড এলাকার সাথী নামের এক মেয়েকে গার্মেন্টসে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ঢাকায় নিয়ে যায়। সেখানে সাথী খাতুনকে কয়েকদিন যাবৎ ধ র্ষণ করে ও ধ র্ষণ শেষে হ ত্যা করে লাশ গুম করে সিদ্দিকুর রহমান।

পরে নি হত সাথী খাতুনের মা জাবেদা খাতুন বাদী হয়ে ১৯৯৭ সালে নারী ও শিশু নি র্যাতন দমন আইনে মামলা করে। আদালত দীর্ঘ শুনানি শেষে ২০১২ সালে অভিযুক্ত পলাতক আসামি সিদ্দিকুর রহমানকে সাথী খাতুনকে ধ র্ষণ ও হ ত্যার দায়ে যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করে।

শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান জানান, এএসআই আব্দুর রহমানকে দীর্ঘ ২২ বছর পালিয়ে থাকা আসামি সিদ্দিকুরকে গ্রেফতারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেই। এরই ধারাবাহিকতায় সে বেশ কিছুদিন বিভিন্ন জনকে নজরদারির মাধ্যমে সিদ্দিকুরের অবস্থান সনাক্ত করে।

আজ শনিবার ভোরে পাবনা জেলার ফরিদপুর থেকে আসামি সিদ্দিকুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযানে অংশ নেয়, আসলাম হোসেন (ওসি অপারেশন এন্ড কমিউনিটি পুলিশিং), এসআই সামিউল ইসলাম, এএসআই আব্দুর রহমানসহ থানা পুলিশের একটি দল।

সংবাদ প্রকাশের জেরে বালু ব্যবসায়ীদের হামলায় ২ সাংবাদিক আহত

স্টাফ রিপোর্টার:সংবাদ প্রকাশের জেরে বালু ব্যবসায়ীদের হামলায় দুই সাংবাদিক আহত
নাজমুল হক নাহিদ, নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুরে বালু মহাল নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জেরে ‘দৈনিক যায়যায়দিন’ পত্রিকার মহাদেবপুর উপজেলা প্রতিনিধি ইউসুফ আলী সুমন (২৩) এবং ‘দৈনিক দুরন্ত সংবাদ’ পত্রিকার মহাদেবপুর প্রতিনিধি আমিনুর রহমান খোকনের উপর হামলা হয়েছে।

উপজেলার মহিষবাথান মোড় এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে সাংবাদিক ইউসুফ আলী সুমন বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫-৭ জনের বিরুদ্ধে মহাদেবপুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরের ৩ এপ্রিলে আত্রাই নদীর মহিষবাথান বালু মহাল নিয়ে ‘মহাদেবপুরে নীতিমালা উপেক্ষা করে বালু উত্তোলন’ শিরোনামে জাতীয়, আঞ্চলিক ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ হয়। এতে প্রশাসন সেখানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে। এরই জের ধরে আত্রাই নদীর মহিষবাথান ঘাটের বালু ব্যবসায়ী হেলাল সরদার (৪০), মতিন (৪৫) এবং রাসেল (৩৫) সহ তাদের সহযোগীরা বিভিন্ন ভাবে ইউসুফ আলী সুমনকে হুমকি-ধামকি দিতে থাকে।

গত ৩০ জুলাই (মঙ্গলবার) বিকেলে মহিষবাথান ঘাট এলাকার নদী পাড়ের বাসীন্দাদের ডাকে আবারো অবৈধ্য খনন যন্ত্র (ড্রেজার) দিয়ে বালু উত্তোলনের সংবাদ সংগ্রহের জন্য গেলে বালু ব্যবসায়ীরা সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য তাদের হুমকি-ধামকি দেয়।গত ৫ আগষ্ট মোটরসাইকেল যোগে সাংবাদিক ইউসুফ আলী সুমন ও আমিনুর রহমান খোকন জেলার পতœীতলা থানার উদ্যেশে যাওয়ার সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মহিষবাথান মোড়ে অপর একটি মোটরসাইকেল তাদেরকে পেছনের দিক থেকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যাওয়া চেষ্টা করে। ধাক্কায় ইউসুফ আলী সুমন ডান পায়ে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে রাস্তায় উপর বসে পড়েন।

এসময় আমিনুর রহমান খোকন ওই মোটরসাইকেল আরোহীকে বাধা প্রদান করলে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি (বাকবিতন্ডা) হয়। এসময় বালু ব্যবসায়ী হেলাল সরদার, মতিন এবং রাসেলসহ ৫-৭ জন তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারপিট করে দুইটি ক্যামেরা ও একটি মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়।তাদের আত্মচিৎকারে পথচারিরা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা চড়াও হয় ও সবাইকে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেয়।
হামলাকারীরা সাংবাদিকদের ছিনতাইকারী আবার কেউ কল্লা কাটা বলে চালিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে।

এরপর দুই সাংবাদিককে মহিষবাথান মোড়ের একটি দোকানে নিয়ে সাটার বন্ধ করে প্রায় ২ঘন্টা আটকে রাখা হয়। তারা যেন আইনের আশ্রয় নিতে না পারে এজন্য একটি সাদা কাগজে লেখা আপোসনামায় জোর করে স্বাক্ষর নেয়া হয়। এসময় মোবাইল ফোন ফেরত দেয়া হলেও ক্যামেরা দুইটি ফেরত দেয়া হয়নি। ঘটনাস্থল থেকে এসে তারা মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে যান।

মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এজাহার পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নদী থেকে এক নারীর লাশ ও দুই শিশুকে জীবিত উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার: জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় যমুনা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ছয় জনের মধ্যে রেজিয়া খাতুন (৪৫) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় নিখোঁজ দুই শিশু নয়ন (১১) ও মমতাকে (৭) বগুড়ায় পৃথক স্থান থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে যমুনা নদীতে প্রচণ্ড বাতাস আর তীব্র ঢেউয়ের কারণে ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার কাজ বন্ধ রেখেছে।

রেজিয়া খাতুন হলকারচর গ্রামের মৃত মজিবর রহমানের স্ত্রী। দেওয়ানগঞ্জ থানার চুকাইবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম খান জানান, নিখোঁজ রেজিয়া খাতুনের মৃতদেহ সিরাজগঞ্জ জেলার পাতিলদহ চর থেকে উদ্ধার করেছেন তার স্বজনেরা। নিখোঁজদের উদ্ধারকাজে নিয়োজিত স্থানীয় ইউপি মেম্বার কালাম মৃতের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন। শুক্রবার বিকালেও নিখোঁজদের সন্ধানে স্বজনেরা বিভিন্ন স্থানে ছুটে বেড়িয়েছেন।

এদিকে গত বৃস্পতিবার বগুড়ার সারিয়াকান্দির যমুনা নদী থেকে নয়ন (১১) নামে এক শিশুকে উদ্ধার করা হয়। রুস্তম আলী নামে এক কৃষক তাকে কাজলা ইউনিয়নের কুড়িপাড়া চর থেকে উদ্ধার করেন। একইদিন ভোরে পারভীন বেগম নামে এক গৃহবধু চন্দনবাইশার শেখপাড়া থেকে মমতা (৭) নামে শিশুকে উদ্ধার করেন। শুক্রবার দুপুরে সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। ওসি আল আমিন এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জের চর হলকা গ্রামের ময়েন উদ্দিনের স্ত্রী ফিরোজা বেগম জানান, তার মেয়ে মমতা স্থানীয় হাবরাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম শ্রেণিতে পড়ে। তারা ত্রাণ নিয়ে নৌকায় চর হলকা গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন। খারাপ আবহাওয়ায় মাঝ নদীতে নৌকা ডুবে যায়। মমতা ও অন্যরাসহ তিনিও ডুবে যান। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করেন। আর মেয়ে মমতা নদীতে ভেসে বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে চলে আসে।

গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলার বেদকাবা গ্রামের শাহানুরের ছেলে নয়ন জানায়, সে তার বড় ভাই সেলিমের শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ত্রাণ নিয়ে ফেরার সময় নৌকা ডুবে গিয়েছিল। সে সারারাত ভাসতে ভাসতে বৃহস্পতিবার ভোরে বগুড়ার সারিয়াকান্দির কুড়িপাড়া চরে যমুনা নদীর তীরে আসে। সেখানে থেকে এক ব্যক্তি তাকে উদ্ধার করেছেন।

সারিয়াকান্দি থানার ওসি আল আমিন জানান, শুক্রবার দুপুরে মমতাকে তার মায়ের কাছে ও নয়নকে তার ভাইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নদীতে ডুবে যাওয়া ওই শিশুকে ফিরে পেয়ে স্বজনরা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

উল্লেখ্য, ঈদ উপলক্ষে বিতরণ করা ভিজিএফের চাল নিয়ে গত বুধবার রাত ৮টার দিকে ফুটানি বাজার ঘাট থেকে চর হলকা হাওড়াবাড়ীর দিকে রওনা হন ২৮ থেকে ৩০ জন। পথে যমুনা নদীর মাঝে প্রবল বাতাস ও স্রোতে নৌকাটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় ২৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হই
সূত্র বাংলা ট্রিবিউন