ভালুকায় বজ্রপাতে বৃদ্ধ নিহত | BD24Live.com | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, ১৬ আগস্ট ২০১৯

ছবি: প্রতীকী

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের সীডষ্টোর খিলবাড়ী পাড়ায় বজ্রপাতে শরাফত আলী (৬০) নামের একবৃদ্ধ নিহত হয়েছে।
শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে বাড়ির পাশের ওরিয়ন মাঠে গরু চড়াতে গেলে হঠাৎ বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।
নিহত শরাফত আলী উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের খিলপাড়া এলাকার হাছেন আলীর ছেলে।
জানা যায় (১৬ আগষ্ট) শুক্রবার দুপুরে বাড়ির পাশের ওরিয়ন মাঠে গরু চড়াতে গেলে হঠাৎ বজ্রপাতের ঘটনা ঘটলে শরাফত আলী অচেতন হয়ে মাঠে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।
কেএ/ডিএ

এইচএসসির পুনর্নিরীক্ষায় ফেল করা শিক্ষার্থীও পেলেন জিপিএ-৫ | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার:
যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এইচএসসি পরীক্ষার খাতা পুনর্নিরীক্ষায় ৮৭ জনের গ্রেড পরিবর্তন হয়েছে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬ জন। আর অকৃতকার্য থেকে কৃতকার্য হয়েছে ৩০ জন শিক্ষার্থী। বাকিদের পরিবর্তন হয়েছে বিভিন্ন গ্রেড।
একবারেই ফেল করা শিক্ষার্থীরা জিপিএ-৫ পাওয়ায় পরীক্ষকদের দক্ষতা আর দায়িত্বশীলতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। পূর্বে যারা পরীক্ষক ছিল তারা কীভাবে এ উত্তরপত্রগুলো মূল্যায়ন করেছেন। যদি সঠিকভাবে মূল্যায়ন করে থাকতেন তা হলে তারা কীভাবে ফেল করে পরে পাস করলো?
বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুন্দ্র জানান, শুক্রবার সকালে ফল প্রকাশ করা হয়। ২০১৯ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের ফলাফল গত ১৭ জুলাই প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত ফলাফলে আপত্তি ও প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ায় ২৩ হাজার ১২৩ পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র নতুন করে মূল্যায়নের জন্য আবেদন করে। এতে ৮৭ জনের ফল পরিবর্তন এসেছে। তাদের মধ্যে ফেল করা ৩০ জন পুনর্নিরীক্ষায় বিভিন্ন গ্রেড পয়েন্ট পেয়ে পাস করেছে। এর বাইরে অকৃতকার্য থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ জন। এ গ্রেড থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২২ জন, এ মাইনাস থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ জন। এছাড়া বাকিদের বিভিন্ন গ্রেডে ফলাফল পরিবর্তন হয়েছে।
এ বিষয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুন্দ্র বলেন, পরীক্ষার উত্তরপত্রে নম্বর যোগফল গণনার কারণে পুনর্নিরীক্ষার রেজাল্টে পরিবর্তন আসে। ২৩ হাজার ১২৩ পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র নতুন করে পরীক্ষক নির্ধারণ করে মূল্যায়ন করা হয়। এতে ৮৭ জনের ফল পরিবর্তন হয়েছে। যাদের ফল পরিবর্তন করা হয়েছে তাদের মধ্যে ৩০ জন প্রথম প্রকাশিত ফলাফলে অকৃতকার্য হয়েছিল। ফেল করা শিক্ষার্থীরা পুনর্নিরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়ায় পরীক্ষকদের দক্ষতার বিষয়ে প্রশ্ন উত্তরে তিনি আরও বলেন, অভিজ্ঞ পরীক্ষক দিয়ে খাতা পুনর্নিরীক্ষা করা হচ্ছে। যার মধ্যেও কিছু খাতায় অইচ্ছাকৃত বা গণনার কারণে ভুল হয়। নিয়ম অনুয়ায়ী যে প্রাপ্য ফলাফল সেটাই দেয়া হবে। আর খাতা দেখায় ভুল করা পরীক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
মিলন রহমান/এমএএস/পিআর
সূত্র জাগো নিউজ

হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগী ৫০ হাজার | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: ডেঙ্গুতে আক্রান্ত। ছবি: যুগান্তরডেঙ্গু রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। অব্যাহত আছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীর চাপ। গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) ১ হাজার ৭১৯ জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন।
এ নিয়ে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ভর্তি রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৯ হাজার ৯৯৯ জন। এদের মধ্যে বেশির ভাগই চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছে।
শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন্স সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সর্বশেষ পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানানো হয়।
তবে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে ২১০ জন কম। আগের দিন ১ হাজার ৯২৯ জন রোগী ডেঙ্গু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।
স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে, সারা দেশের হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গুরোগী ভর্তি আছেন ৭ হাজার ৭১৬ জন, যার মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৪ হাজার ১৫ জন। তবে বেসরকারি বিভিন্ন সূত্রের দাবি, ডেঙ্গু আক্রান্তের এ সংখ্যা আরও অনেক বেশি।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকারি হিসাবে প্রকাশিত ডেঙ্গু রোগীর চেয়ে বাস্তবে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বেশি। কারণ প্রায় প্রতিদিনই বিপুলসংখ্যক রোগী হাসপাতালে শয্যা (সিট) না পেয়ে বাসায় ফিরে যাচ্ছেন। বাসায় অবস্থান করেই নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ নিচ্ছেন ডেঙ্গু রোগীরা। সূত্র যুগান্তর

প্রতারণা মামলায় স্কুল শিক্ষক গ্রেফতার | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ, ১৬ আগস্ট ২০১৯

বান্দরবান জেলার আলীকদম উপজেলায় প্রতারণা মামলায় মো. মিনহাজ উদ্দিন রোকন (৪৫) নামে এক স্কুল শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে আলীকদম থানা পুলিশ।
বৃহস্পতিবার (১৫ আগষ্ট) রাত ৮টায় রেপারপাড়া বাজারে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতার মো. মিনহাজ উদ্দিন আলীকদম উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের রেপারপাড়া বাজার এলাকার মৃত আহমদ কবির এর ছেলে ও মাংতাই হেডম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।
আলীকদম থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আব্দুল খালেক বলেন, এসআই মতিউর রহমানের নেতৃত্বে ১৫ আগষ্ট রাত ৮টায় রেপারপাড়া বাজারে অভিযান চালিয়ে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি মো. মিনহাজ উদ্দিন রোকনকে গ্রেফতার করা হয়। পার্শ্ববর্তী লামা পৌরসভার লাইনঝিরি এলাকার মো. কামাল মিয়ার ছেলে মো. আকতার হোসেন (৩০) গত ৪ আগষ্ট ২০১৯ইং লামা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মো. মিনহাজ উদ্দিন রোকন ও মো. সজীব কামালের বিরুদ্ধে ২ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগে ৪০৬, ৪২০ ও ৫০৬ ধারায় সিআর মামলা ২১০/১৯ রুজু করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে দু’জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি ওয়ারেন্ট ইস্যু করেন।
গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে আলীকদম থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দিন বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামিকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।
কেএ/ডিএ

হাজতে বসেই নিজের বৌভাতের খাবার খেলেন বর | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার:
রাতভর তদবির করেও শেষ রক্ষা হলো না খুলনার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ছাত্র ও খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত রায়ের ছেলে শিঞ্জন রায়ের (২৫)। ধর্ষণ মামলার আসামি তাকে হতেই হলো। আর তাতে নিজের বৌভাতেও থাকা হলো না তার।
ধর্ষিতা একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী বাদী হয়ে সোনাডাঙ্গা থানায় শুক্রবার মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ এ মামলায় আসামি শিঞ্জন রায়কে আদালতে চালান করবে বলে জানিয়েছে।
অন্যদিকে বর শিঞ্জন রায়কে ছাড়াই নগরীর শিববাড়ি এলাকার একটি অভিজাত হোটেলে চলছে বৌ-ভাতের অনুষ্ঠান। সেখান থেকেই খাবার পাঠানো হয় সোনাডাঙ্গা থানা হাজতে থাকা শিঞ্জনকে।
শিঞ্জন রায় পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর থেকেই তাকে মুক্ত করতে কর বিভাগের কতিপয় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা থানায় যান তদবির করতে। রাতভর তারা থানায় অবস্থান করেন। শুক্রবার সকালেও পরিবারের পক্ষ থেকে হাজার চেষ্টা করা হয় শিঞ্জনকে মুক্ত করতে। ধর্ষিতাকে দেয়া হয় অনেক প্রলোভন। কিন্তু ধর্ষিতা নিজের সিদ্ধান্তে অটল থেকে মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত নেন।
এসব দেখে শুনে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিঞ্জনের মা সোনাডাঙ্গা মডেল থানা থেকে বেরিয়ে যান। কিন্তু সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করায় শিঞ্জনের আর মুক্ত হওয়া হয়নি। তবে এই বিষয়ে মিডিয়ার সামনে মুখ খোলেনি শিঞ্জনের পরিবারের কেউ।
উল্লেখ্য, নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির এলএলবির এক ছাত্রীকে (২০) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে গতকাল রাতে খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়ের ছেলে শিঞ্জন রায়কে (২৫) গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী বাদী হয়ে নগরীর সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় এজাহার দাখিল করেছেন।

নোবেলের আপত্তিকর ছবি ভাইরাল | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার:
সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েক দিন থেকে ভেসে বেড়াচ্ছে সা রে গা মা পা অনুষ্ঠান থেকে আলোচনায় আসা কণ্ঠশিল্পী মাইনুল আহসান নোবেলের বেশ কিছু নগ্ন ও আপত্তিকর ছবি। এক নারীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ছড়ানো হয় ছবিগুলো। পরে ভারতীয় কয়েকটি অনলাইনেও বেশ রসিয়ে নিউজ প্রকাশ করা হয় এটি নিয়ে।
কলকাতার গণমাধ্যমে নোবেলকে নিয়ে সংবাদের শিরোনাম করা হয়েছে ‘বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস! ‘নোবেলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ কিশোরীর’। রহস্য জনক ব্যপা হলো যে কিশোরীর ফেসবুক থেকে ছবিগুলো প্রকাশ করা হয়েছে তার পরিচয় মেলেনি এখনো। কারণ ছবিগুলো পোস্ট করার পর সেই অ্যাকাউন্ট ডিঅ্যাক্টিভ করা হয়।
এই অল্প সময়ের মধ্যেই নোবেলকে নিয়ে লেখা সেই কিশোরীর স্ট্যাটাস ও ছবি কপি পেস্ট হয়ে যায়। অনেকে সেটার স্ক্রিনশর্ট নিয়ে ছড়িয়ে দেয়। নোবেল ভক্তদের দাবি এই সুযোগ নিয়ে ভারতীয় কিছু গণমাধ্যম নোবেলকে দুশ্চরিত্র প্রমাণ করতে উঠে পড়ে লেগেছে।
কলকাতার একটি অনলাইন পোর্টাল বাংলাদেশি গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশের গণমাধ্যমে এরকম কোনো খবরই প্রকাশ হয়নি। তবে একটি নামসর্বস্ব ওয়েবসাইটে অস্থায়ী অ্যাকাউন্ট-এর লেখাগুলোকে ‘সংবাদ’ বানিয়ে আপলোড করা হয়।
শাহরীন সুলতান নামের সেই সেই ফেসবুক আইডির স্ট্যাটাসটি এমন- ‘নোবেল, বাংলাদেশের লাখো মেয়ের ভালোবাসা। লাখো ছেলের আইডল। কিন্তু একমাত্র গোপালগঞ্জবাসীরাই চিনে ওর আসল রূপ। আজ আমি আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো ভোলাভালা চেহারার পিছে লুকিয়ে থাকা এক হিংস্র জানোয়ারের সাথে যাকে আপনারা সবাই নোবেলম্যান নামে চিনেন।
আমার মত অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েদের মিথ্যা প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে ইজ্জত নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার উপর যদি নোবেল থাকতো, তাহলে তা এই সারাগামাপা খ্যাত মাদকাসক্ত নোবেল-ই পেতো। মাদক আর নারীর নেশায় আসক্ত নোবেলকে আজ যখন কোটি মানুষ আইডল মানে, তা দেখে আসলেই দেশের ফিউচার জেনারেশান নিয়ে খুব ভয় হয়।
মাদকাসক্ততার কারনে দুইবার রিহ্যাবে গিয়ে মাদকের নেশা থেকে কয়েকদিন দূরে ছিল। কিন্ত নারীর নেশার জন্যতো রিহ্যাব নেই। আর এটি কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে আমার মত শত শত মেয়ের জন্য।.নোবেলের সাথে আমার পরিচয় হয় গতবছরে, যখন আমার বয়স মাত্র ১৫। প্রেম ভালোবাসা এগুলো তত বুঝতামনা। নোবেল আমাকে বুঝতে শিখায় ভালোবাসা কি। বয়স কম থাকার কারণে ওর প্রতিটা ফাঁদে খুব সহজেই পরে যাই। এই ফাঁদে শুধু আমি পড়িনি। আমার মত আরো অনেক মেয়েই পড়েছে। মেয়েগুলো বেশিরভাগি অপ্রাপ্তবয়স্ক ছিল।
কিন্ত নোবেলের বিরুদ্ধে মুখ খুলার সাহস সব মেয়েগুলোর দিন দিন নোবেলের জনপ্রিয়তা বাড়ার সাথে সাথে ক্রমশ কমতে থাকে। আজ আমি কিছুটা সাহস নিয়ে আসলাম। আমি ডিপ্রেশানে চলে গিয়েছি। মাঝে মাঝে নিজের জীবনটা দিয়ে দিতে মন চায়। কিন্ত আত্মহত্যা মহাপাপ বলে তা পারিনা। যদিও আমার আত্মাটা নোবেল আরো আগেই মেরে ফেলেছে।.আপনারা সবাই ভাবছেন নোবেল এগুলো কেমনে করে? আমি যদি বলি ওর এই সকল কুকর্ম ওর বাবা মা ও জানে তাহলে বিশ্বাস করবেন? প্রত্যেকটা মেয়েকে ও ওর বাসায় নিয়ে যায় ফিজিক্যালি ইনভল্ব হওয়ার জন্য। ওর বাবা মার সাথেও পরিচয় করায় বন্ধু হিসেবে।
অন্যদিকে মেয়েটাকে আশ্বাস দেয় যে বাবা মার সাথেতো পরিচয় হয়েছেই। বিয়েও করবে মেয়েটাকে। এখনতো সব করা যায়। আমিও এই ফাঁদে পা দিয়েছি। ওর পিপাসা মিটলে ওর ওই বাবা মার সামনেই মেয়েটাকে অপমান করে বের করে দেয়। আর ওর বাবা মা কিছুই বলেনা। তাই ওর এমন হওয়ার পিছে ওর পরিবারো দায়ী!
নোবেলের নিজের একটা বোন আছে। কিভাবে সে অন্যের বোনের জীবন এভাবে ধ্বংস করে আমার জানা নেই। অনেকেই বলবেন ওর নামে কেস করতে। ওর নামে কেস করেও লাভ নেই। পুলিশ ওর বাবার পকেটে থাকে। .সবশেষে বলবো যে আমি জানি এই সমাজ আমাকেই খারাপ বলবে। আমি-ই গালি খাবো নোবেলের ফ্যানদের থেকে। কারণ আমাদের সমাজে সব দোষ মেয়েদেরই হয়। এই পোস্ট দিয়ে নোবেলের কিছুই হবেনা এটাও আমি জানি। কিন্তু যাই হোক না হোক, আমার ভিতরের মৃত আত্মাটার কিছুটা শান্তি হবে এই জানোয়ারটাকে সবার সামনে তুলে ধরতে পারলে। ওর আসল চেহারা বাংলাদেশের প্রত্যেকটা মানুষের দেখা উচিৎ। ওর মত ছেলে লাখো ছেলের আইডল হোক, এটি মেনে নেওয়া যায়না। শত মেয়ের জীবন নষ্টের কারণ কোন মেয়ের ক্রাশ হতে পারেনা। .ওর ব্যাপারে সর্বশেষ জানলাম যে ঈদের আগের দিনও মাতাল হয়ে গোপালগঞ্জের একজনের উপরে মোটরসাইকেল উঠিয়ে দেয়। তার মানে রিহ্যাবে গিয়েও লাভ হয়নি। ও এখনো মাদক সেবন করে। আর নারীর নেশা কাটানোর জন্যতো রিহ্যাব ও নেই। এই নেশা ওর কাটবেনা! .আপনাদের বিশ্বাস করানোর জন্য কিছু ছবি দিলাম। ছবিগুলো কিছু ও তুলেছে কিছু আমি আমার আর ওর ছবি, ওর বাসার রুমের ছবি (বিশ্বাস না হলে ওর বাসায় গিয়ে দেখে আসেন), কিউট হয়ে ঘুমিয়ে থাকার ছবিটিও দিলাম।’
এই স্টাটাসকি সত্য! নোবেলের একভক্ত তার পর্যবেক্ষণ থেকে বলছেন,‘ভাইরাল হওয়া ছবিগুলায় কিছু ছবি আছে যে নোবেল শুয়ে আছে। আর ওই ছবিগুলায় বুঝা যাচ্ছে যে নোবেলের মোটা সোটা একটা লুক! খেয়াল করলে দেখা যায় যে গত কিছুদিন যাবত বিভিন্ন ফ্যানপেজ বা গ্রুপে নোবেলের মোটা-সোটা লুকের বেশ কিছু ছবি ভাইরাল। যেই মেয়েটা নোবেলের এগেইন্সটে এলিগেশন এনেছে তাঁর ভাষ্যমতে নোবেলের সাথে ওর রিলেশন ছিল গতবছর।
কিন্তু গতবছরের নোবেলের ছবি ঘাটাঘাটি করলে দেখা যায় যে নোবেল স্লিম ছিল! তাহলে নোবেলের আজকের ভাইরাল হওয়া ছবি গুলায় মোটা লুক আসলো কীভাবে? নোবেল কি তাহলে প্রতি বছর নিয়ম করে মোটা হয়?’
নোবেলে এক ভক্ত বলছেন, ‘যে আইডির অস্তিত্ব নেই তার বক্তব্য কতখানি সত্য হতে পারে? পোস্ট এর সঙ্গে যে ছবি গুলো দেয়া হয়েছে সেগুলো দেখে অনেকে বলছেন স্রেফ ফটোশপ করে ছবি বিকৃতি ঘটিয়ে ছবির সঙ্গে ছবি বসিয়ে বানোয়াট একটা গল্প বানানো হয়েছে।’
এই এ বিষয়ে নোবেলে মন্তব্য নিয়ে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
এমএবি/এমকেএইচ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে
পারেন আপনিও –
[email protected]

সূত্র জাগো নিউজ

প্রয়োজনে পাকিস্তানে পারমাণবিক বোমা হামলা করবে ভারত | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রকাশিত: ৬:০০ অপরাহ্ণ, ১৬ আগস্ট ২০১৯

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বালিতের পর থেকে উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে পাশ্ববর্তী দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তানে। এরইমধ্যে দেশদুটো সীমান্তে গোলাগুলির ঘটনাও ঘটেছে। যাতে উভয়পক্ষের অন্তত ৮-১০ সেনা নিহত হয়েছে।
এমতাবস্তায় দুই দেশের মধ্যে যে কোন সময় যুদ্ধ বেধে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।
এদিকে শত্রুদেশ পাকিস্তানকে থামাতে বিধ্বংসী পারমানবিক বোমা হামলার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনি পাকিস্তানকে সতর্ক করে বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত পরমাণু অস্ত্র নিয়ে ব্যবহার নীতি মেনে চলছে ভারত। কিন্তু যদি প্রয়োজন পড়ে তাহলে এ নীতি থেকে ভারত সরে আসতে দ্বিধাবোধ করবে না।’
এছাড়া জম্মু-কাশ্মীরের অনুচ্ছেদ ৩৭০ বাতিলের পর পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন বেশ কয়েকবার। তাছাড়া নয়াদিল্লির সাথে সব ধরনের বাণিজ্যিক সম্পর্কও ছিন্ন করেছে ইসলামাবাদ।
এইচএ/ডিএ

আইয়ুব বাচ্চুর জন্মদিনে প্রকাশ পেল ১৪ বছর আগের গান | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: আইয়ুব বাচ্চু। ফাইল ছবিজনপ্রিয় ব্যান্ডশিল্পী ও গিটারিস্ট প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চুর ৫৭তম জন্মদিন আজ। ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম শহরে জন্ম হয় আইয়ুব বাচ্চুর।
গত বছরের ১৮ অক্টোবর সবাইকে কাঁদিয়ে পরপারে পাড়ি জমিয়েছেন জনপ্রিয় এই শিল্পী। আইয়ুব বাচ্চুর জন্মদিনে প্রকাশিত হল তার গাওয়া গান ‘ভাবসূত্র’।
আজ (১৬ আগস্ট) এই কিংবদন্তির জন্মদিনে বিকাল ৪টায় টানা ১৪ বছর পর সেই গান প্রকাশ করল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সাউন্ডটেক।
‘ভাবসূত্র’-এর কথা লিখেছেন মারজুক রাসেল। সুর-সংগীতায়োজন করেছিলেন আইয়ুব বাচ্চু নিজেই। এটির রি-মাস্টারিং করেছেন আনিসুজ্জামান আনিস।
গানটি প্রকাশ করে ইউটিউবের ফুটনোটে বিস্তারিত জানান মারজুক রাসেল। তিনি লিখেছেন-
২০০৪-এ ‘ফিসফাসফিস’ টাইটেলের একটা অ্যালবাম আয়োজন করছিলাম। লেবেল: সাউন্ডটেক। কণ্ঠশিল্পী: আইয়ুব বাচ্চু, আসিফ ও পান্থ কানাই। গানের কথা আমার। সুর-সঙ্গীত বাচ্চু ভাই [আইয়ুব বাচ্চু] ও টিটোর।
দীর্ঘদিন ধরে প্রত্যেকের ৪টি- মোট ১২টি গান [বাচ্চু ভাইয়ের ৪টি এবি কিচেনে, আসিফ ও পান্থ কানাইর ৮টি সাউন্ড গার্ডেন স্টুডিও] রেকর্ড করে ২০০৫-এর ১০ জানুয়ারি অ্যালবামটা টেকনিক্যাল কোনো কারণে ১১টি গান নিয়ে রিলিজ হয়।
১টা গান থেকে যায়; ‘ভাবসূত্র’ টাইটেলের আনরিলিজড ওই গানটার সুর-সঙ্গীত-কণ্ঠ বাচ্চু ভাইয়ের।… রিলিজের পর দিন-মাস-বছর যায়, আনরিলিজ গানটার কথা সংশ্লিষ্ট সবাই ভুলে যাই।…কবিতা-গানের চেয়ে ভিজুয়াল মিডিয়ামে বেশি জড়িয়ে যাওয়ার ভেতরেও মাঝে মাঝে গানটার কথা মনে পড়ত, আবার ভুলে যেতাম; আবার মনে পড়ত, ভুলে যেতাম।
…এইরকম ‘ভোলা’-‘মনে পড়া’ চলতে-চলতেই বাচ্চু ভাই যেদিন প্রয়াত হলেন, সেদিন [১৮ অক্টোবর, ২০১৮] থেকে তার সঙ্গে গান নিয়ে কাটানো অম্লমধুর অনেক স্মৃতি, মন-খারাপ ও ‘ভাবসূত্র’ গানটার কথা যতক্ষণ সজাগ থাকতাম ততক্ষণ মনে হতে থাকল। সাউন্ডটেকের বাবুল ভাইয়ের [সুলতাম মাহমুদ বাবুল] সঙ্গে যোগাযোগ করে আনরিলিজ গানটার কথা জানালাম।
উনি কয়েকদিন টাইম নিয়ে প্রায় ১৪ বছর আগের DAT [Digital Audio Tape] খুঁজে বের করে জানালেন। আমার খোঁজে DAT-Player আছে কি না, জানতে চাইলেন।… DAT-Player আছে, চেনাজানা এমন একটা জায়গায় DAT পাঠানোর পর সেখানে ১০-১২ দিনেও কোনো কাজ হল না।
এর মধ্যে একবার এলআরবির মাসুদের কাছে ওই সময়ের প্রসঙ্গ এনে গানটার কথা বললাম; তিনি বললেন, স্টুডিও লকড, খুললে জানানো যাবে হয়তো!…যাইহোক, শেষে বন্ধু দূরে [গায়ক, রেকর্ডিস্ট] খোঁজ দিল আনিস ভাইয়ের [প্রমিথিউসের আনিসুজ্জামান আনিস]।
ফাঙ্গাস-টাঙ্গাস পড়ে প্রায়- বাতিল হয়ে যাওয়া DAT-টা টেকনিক্যাল ও তার উদ্ভাবিত নানান পদ্ধতিতে ফাঙ্গাসমুক্ত করে গানটার এডিট ও রিমাস্টার করে দিলেন আনিস ভাই। আনিস ভাইকে ধন্যবাদ। ধন্যবাদ সুলতান মাহমুদ বাবুল ভাই ও সাউন্ডটেক কর্তৃপক্ষকে।
বাচ্চু ভাইয়ের অনুপস্থিতিতে গানটা শ্রোতাদের কাছে যাচ্ছে জেনে একাধারে মন-খারাপ ও ভালো লাগা-দুইটাই হচ্ছে।
সূত্র যুগান্তর

৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকা, বৌভাতের আগের রাতে ধরা খেল বর! | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রকাশিত: ৬:০১ অপরাহ্ণ, ১৬ আগস্ট ২০১৯

খুলনার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির এলএলবির এক ছাত্রীকে (২০) বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে শিঞ্জন রায়কে (২৫) আটক করেছে পুলিশ। শিঞ্জন রায় খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায় এর ছেলে।
গত বুধবার (১৪ আগষ্ট) খুলনার খালিশপুর এলাকার একটি কমিউনিটি সেন্টারে শিঞ্জন রায় এর জাঁকজমকপূর্ণ বিয়ের অনুষ্ঠান হয়। আজ তাদের বৌভাত হওয়ার কথা ছিল কিন্তু বিয়ের খবর শুনে বৃহস্পতিবার (১৫ আগষ্ট) রাতেই শিঞ্জনের বাড়িতে হাজির হন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী (২০)।
তাঁর দাবি, শিঞ্জনের কারণে তিনি ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এ সময় শিঞ্জন রায়ের বাড়ির সামনে দুজনের বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজন পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ দুজনকে সোনাডাঙ্গা থানায় নিয়ে যায়।
এ সময় ওই ছাত্রী থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। পরে অভিযোগটি মামলা হিসেবে নেয় সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশ। ওই মামলায় সদ্য বিয়ে করা শিঞ্জন রায়কে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
অভিযোগ দায়ের করা ছাত্রী (২০) বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জের দৈবজ্ঞাঠি এলাকার বাসিন্দা। সোনাডাঙ্গা থানার পেছনে ভাড়া বাসায় থেকে পড়াশুনা করেন।
ওই ছাত্রী বলেন, নগরীর সোনাডাঙ্গার নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সির এলএলবিতে তিনি ও শিঞ্জন রায় পড়াশুনা করেন। গত এক বছর আগে শিঞ্জন তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এরপর বিয়ে করার কথা বলে তার ভাড়া বাসাসহ বিভিন্ন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। সে বর্তমানে ৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।
এদিকে শিঞ্জনকে অনত্র বিয়ে দেয়া হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে তিনি বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে মুজগুন্নী আবাসিকের ১৬ নম্বর রোডে গিয়ে শিঞ্জন রায়ের দেখা পান। এ সময় তার বিয়ের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে সে তাকে সেখান থেকে ইজিবাইকে জোর করে তুলে দিতে গেলে স্থানীয়দের নজরে আসে। পরে থানা পুলিশে খবর দিলে তারা দু’জনকেই সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় নিয়ে আসে।
সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ওসি মো. মমতাজুল হক জানান, উভয় পক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
কেইআর/এসইসি

পাকিস্তানকে পারমাণবিক হামলার হুমকি ভারতের | সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার:
ভারত-অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপ করাকে কেন্দ্র করে ফের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ছে চিরবৈরী দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তানে। বৃহস্পতিবার ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে উভয়পক্ষের গোলাগুলিতে ৮ সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৫ জনই ভারতের।
স্বাধীনতা দিবসের উৎসবে পাঁচ সেনা সদস্যের প্রাণহানির ঘটনা ভারতকে আরও উসকিয়ে দিল পাকিস্তান। তাইতো শত্রু দেশ পাকিস্তানকে থামাতে এবার বিধ্বংসী পারমাণবিক অস্ত্রের কথা স্মরণ করিয়ে দিল নরেন্দ্র মোদি সরকার। তিনি সরাসরি পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের হুমকি দিলেন পাকিস্তানকে ৷
পাকিস্তানকে সতর্ক করে শুক্রবার দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত পরমাণু অস্ত্র নিয়ে প্রথম ব্যবহার নীতিতে চলে না ভারত। তবে, পরিস্থিতি অনুযায়ী ভবিষ্যতে এই নীতিরও পরিবর্তন হতে পারে।’ অর্থাৎ, ভারত কখনও আগে পারমাণবিক অস্ত্রের ব্যবহার করবে না। তবে পরিস্থিতি বুঝে আগে হামলা চালাতেও পারে।
আজ রাজস্থানের পোখরানে সেনা মহড়া অনুষ্ঠানের শেষ দিনে অংশ নেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, ‘কাকতালীয়ভাবে আজ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। আর পোখরানের সঙ্গে অটল বিহারী বাজপেয়ীর স্মৃতি জড়িয়ে আছে। ভারতকে পরমাণু শক্তিধর রাষ্ট্র হিসেবে তুলে ধরতে অটল বিহারী বাজপেয়ীর যে অবদান রয়েছে তার সাক্ষী এই পোখরান।’
পোখরানে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বাজপেয়ীর ছবিতে শ্রদ্ধা জানান রাজনাথ। এই পোখরানেই ১৯৭৪ এবং ১৯৯৮ সালে পরমাণু পরীক্ষা করা হয়।
জম্মু-কাশ্মীরে অনুচ্ছেদ ৩৭০ বিলোপের পর একের পর এক উসকানিমূলক মন্তব্য করতে দেখা গেছে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকেও। এ ছাড়া নয়াদিল্লির সঙ্গে সব রকমের কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে ইসলামাবাদ।
কাশ্মীর সমস্যার সমাধানে বিশ্ব নেতাদের এগিয়ে আসতে জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানের ইমরান খান সরকার। এই পরিস্থিতিতে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের এই মন্তব্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।